উৎসব

“আমার সবসময়েই অনেক মুসলিম বন্ধু ছিল। ছোট থেকে ধীরে ধীরে বড় হওয়া আমার এইসব বন্ধুদের সাথে। ঈদের সময়ে আমি বরাবরই দাওয়াত পাই বন্ধুদের বাসায় যাওয়ার। এ কারনে ঈদ আমার কাছে এমন একটা উৎসব যার জন্য আমি মুখিয়ে থাকি সারাটা বছর। নতুন কাপড় চোপড় পড়ে বন্ধুদের সাথে সারা শহর ঘুরে বেড়ানোর মধ্যে এক অদ্ভূত রকমের আনন্দ আছে। ঈদের উৎসবে আমি চেষ্টা করি আমার বন্ধুদের আর ঈদ উৎসবের আনন্দঘন মুহুর্তগুলোকে ক্যামেরাবন্দী করার। এমনটা কখনই হয় নি যে আমি নিজেকে আলাদা কোন সত্তা অনুভব করেছি ঈদ উৎসবে। কিন্তু আমার উৎসবগুলো এর থেকে কিছুটা আলাদা। সবাই শুধুমাত্র ক্রিসমাসের ব্যাপারেই জানে, অথচ খুব কম মানুষই আমাদের জীবনে ইষ্টারের গুরুত্ত অনুভব করতে পারে। অধিকাংশ মানুষই ইষ্টার উৎসবের ব্যাপারে তেমন কিছুই জানে না প্রায়। আমি এখনও মনে করতে পারি, যখন আমি ছোট ছিলাম ইষ্টারের জন্য সাধারনত ক্লাশ মিস করতাম। এ কারনে আমার শিক্ষকেরা আমাকে জিজ্ঞেস করত কেন স্কুল খোলা থাকা সত্তেও আমি স্কুলে আসিনি? এই প্রশ্নের জবাব দেবার ভাষা আমি কখনই খুঁজে পাই নি।”

“I have always had a lot of Muslim friends. As I grew up with them, I was always invited to their homes during all the Eid festivities. It was something I always looked forward to. We used to wear new clothes and roam around the city; I took pictures of my friends and their festivities. I never felt like a stranger at these celebrations.
However, my holidays are quite different. Christmas is that one holiday everyone knows about but very few understood the significance of Easter in our lives. Most of them didn’t even know about the existence of this holiday. I remember, as a child, I used to miss school for Easter, and my teachers would ask why I skipped the class for no reason on a working day, and I never knew how to respond.”

0 comments on “উৎসবAdd yours →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *